২০২৩ সালের সু খবর রেলওয়ে চাকরি দেবে ১৩৮৫ জনকে

বাংলাদেশ রেলওয়ে, রেলওয়ে সম্পর্কে কিছু কথা বলার লোভ সামলাতে পারছি না, ট্রেন আমাদের অত্যান্ত পছন্দের পরিবহণ, নিরাপদ এবং আরামদায়ক এই বাহনের প্রতি মানুষের বিশেষ আগ্রহ রয়েছে। বর্তমানে বাসের ভাড়া বৃদ্ধির কারণে সাধারণ ও নি¤œ আয়ের মানুষের ভরসার কেন্দ্র হয়ে উছেঠে রেলওয়ে। তবে রেলওয়ের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগের তালিকাটিও বেশ লম্বা, সরকার তার সর্বচ্চ সক্ষমতা দিয়ে অনিয়ম প্রতিহতের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, কিন্তু রেলের কিছু অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য তা সম্ভব হয়ে উছছে না। রেলের নিয়োগ নিয়েও অনিয়মের অভিযোগ বিস্তর। টাকা বিনিময়ে নিয়োগ দান থেকে স্বজন প্রিতি সকল অভিযোগ ই আছে আমাদের অত্যান্ত প্রিয় বাংলাদেশ রেলওয়ের বিরুদ্ধে। তবে আশার কথা হল গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মানণীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে নিয়োগ বানিজের লাগাম টেনে ধরা সম্ভব হয়েছে এখন আর টাকার বিনিময়ে নিয়োগ নিতে হয় না নিজের যোগ্যতায় দক্ষতায় অভিজ্ঞতায় নিয়োগ নিতে হয়। অনেক কথা বলে ফেললাম এবার কাজের কথায় আশা যাক, বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে যার আওতায় চাকরি পাবেন ১৩৫৮ জন, চাকরির বাজারের এই দুর্দিনে এই বিজ্ঞপ্তি আশার আলোক বর্তিকা হয়ে চাকরি প্রত্যাশিদের মাঝে হাজির হয়েছে। চাকরিতে আবেদন করতে তেমন কোন উচ্চ ডিগ্রি দরকার নেই সামান্য এসএএসসি পাশ হলেই চাকরিতে আবেদন এবং নিয়োগ পেলে চাকরি করতে পারবেন।

যারা আবেদন করতে চান তাদের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে সম্পর্কে কিছু সাধারণ তথ্য আপনাদের জানিয়ে রাখা দরকার মনে করছি যদি ইন্টারভিউ প্রর্যন্ত যেতে পারেন তখন হয়ত এ সকল তথ্য আপনাদের কাছেও লাগতে পারে।

২৫০৮৩ জন স্থায়ি কর্মকর্তা কর্মচারী নিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিচালিত হয়ে হচ্ছে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মালিকানাধীন রেল পথ বাংলাদেশের প্রধানতম গণ পরিবহণ ব্যবস্থা যা দেশের পরিবহণ খাতে বিরাট ভুমিকা পালন করে চলেছে, বর্তমানে বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রী হলেন জনাব, মোঃ নূরুল ইসলাম সুজন, এমপি। বাংলাদেশ রেলওয়ের বর্তমান মহাপরিচালক হলেন, জনাব, মোঃ কামরুল আহসান। বাংলাদেশ রেলওয়ের সর্বমোট রেলপথের দৈর্ঘ হল ২৯৫৫.৫৩ কিলোমিটার। সরকার দেশের এক প্রান্তকে অন্য প্রান্তের সাথে রেলপথের মাধ্যমে সংযুক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে তাই রেলওয়ের ব্যাপক উন্নয়ন সাধন করা অতি জরুরি, ১৯৮২ সালে বাংলাদেশ রেলওয়ের ব্যবস্থাপনার দায়িক্ত দেয়া হয় যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের রেলওয়ে বিভাগকে। তার আগে রেলওয়ের ব্যবস্থাপনার দায়িক্ত পালন করেছে রেলওয়ে বোর্ড, তারপর অনেক চড়াই চতরাই পেরিয়ে বাংলাদেশ সরকার রেলপথ মন্ত্রণালয় গঠন করে। প্রিয় পাঠক আশা করছি চাকরির পরিক্ষার ক্ষেত্রে এসকল তথ্য সমুহ আপনাদের কিছুটা হলেও কাজে লাগবে।

আবেদনের যোগ্যতাঃ
এসএসসি কিংবা সমমান পরিক্ষায় কৃতকার্য হতে হবে।
পদের নাম ও পদ সংখ্যাঃ
পদের নামঃ ওয়েম্যান। পদের সংখ্যাঃ ১৩৮৫ টি।

আবেদনের শেষ তারিখঃ আবেদন শুরু হবে ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ খৃষ্টাব্দ থেকে, আর আবেদন শেষ হবে আগামী ২ মার্চ ২০২৩ খৃষ্টার্ব পর্যন্ত।

কি ভাবে আবেদন করা যাবে।
অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন সম্পন্য করতে হবে।

আবেদনের বয়স সীমাঃ
১৮ থেকে ৩০ বছয় বয়সি চাকরি প্রার্থি আবেদন করতে পারবেন তবে প্রতিবন্ধী চাকরি প্রত্যাশিগণ আবেদনের জন্য আরও দু বছর অতিরিক্ত বয়স পাবেন তা হল ৩২ বছর।

আবেদন করতে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন প্রিয় পাঠক আপনাদের সময় সল্পতা ও কর্ম ব্যস্ততার কথা বিবেচনা করে আমরা সম্পুর্ণ আর্টিকেলের সারাংশ প্রশ্ন উত্তরের মাধ্যমে উপস্থাপনা করছি যাতে করে আপনাদের মুল্যবান সময় অপচয় না হয়।

প্রশ্নঃ বাংলাদেশ রেলওয়ের এই বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করতে কেমন শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকতে হবে।
উত্তরঃ এসএসসি বা সমমান পরিক্ষায় কৃতকার্য হতে হবে।

প্রশ্নঃ কি ভাবে আবেদন করা যাবে।
উত্তরঃ অনলাইনের মাধ্যমে অবেদন করতে হবে।

প্রশ্নঃ কবে থেকে আবেদন করা যাবে।
উত্তরঃ আগামী ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ থেকে আবেদন করা যাবে।

প্রশ্নঃ আবেদনের শেষ তারিখ কবে।
উত্তরঃ আবেদনের শেষ তারিখ আগামী ২ মার্চ ২০২৩ খৃষ্টাব্দ পর্যন্ত।

প্রশ্নঃ চাকুরিতে আবেদনের বয়সমীমা কত
উত্তরঃ চাকরিতে আবেদনের বয়সমীমা ৩০ বছর।

প্রশ্নঃ চাকরিতে কোটা সুবিধা পাওয়া যাবে কি না।
উত্তরঃ হ্যা কোটা সুবিধা পাওয়া যাবে।

প্রশ্নঃ বেতন কত।
উত্তরঃ ৮ হাজার ৫ শত টাকা থেকে শুরু হয়ে ২০ হাজার ৫ শত ৭০ টাকা পর্যন্ত।

প্রশ্নঃ বেতন গ্রেড কত।
উত্তরঃ বেতন গ্রেড ১৯।

 

জামানত আবেদন ফি সহ আরও বিস্তারিত তথ্য জানতে এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। বিডিজব পোষ্টের সাথে থাকার জন্য এবং লেখাটি পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *