আলোচনার শির্ষে এখন টুইটার

টুইটার সম্প্রতি সময়ের অত্যান্ত জনপ্রিয় মাইক্রবøগিং সাইট, বৈদ্যুতিক গাড়ী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলার কর্নধর ইলন মাস্ক ২০২২ এর মাঝামাঝি সময়ে টুইটার কেনার ঘোষনা দেন। তারপর থেকেই যেন আলোচনা সমালোচনা পিছুই ছারছে না সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারের। ইলন মাস্ক প্রথমে টুইটার কেনার চুক্তি করার পর কিছুদিনের মধ্যেই চুক্তি থেকে বের হয়ে যাবার ঘোষনা দেন। তিনি কারণ হিসেবে টুইটারের প্রকৃত সকিৃয় ব্যাবহারকারীর সংখ্যা এবং ভুয়া বা বট এ্যাকাউন্টের সঠিক হিসাব তাকে দেয়া হয়নি বলে দাবি করেন।

মাস্কের এ দাবি অবশ্য ধোপে টেকেনি, মাস্কের চুক্তি ভঙ্গের ঘোষনার পর টুইটার কর্তিপক্ষ আদালতে মামলা করে বসে। আদালত মাস্কের চুক্তিভঙ্গকে অবৈধ উল্লেখ করে আগের নির্ধারিত দামেই (৪৪ বিলিয়ন ডলার) দিয়ে টুইটার কেনার নির্দেশ দেয়, এবং টুইটার ক্রয় করার নির্দিষ্ট সমষ সিমা বেধে দেয়। এরপর ইলন মাস্ক এক রকম বাধ্য হয়েই ৪৪ বিলিয়ন ডলার দিয়েই টুইটার কিনে নেন। টুইটার কেনার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই টুইটারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পরাগ আগারওয়াল সহ তিন জন শির্ষ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেন। এবং পাখি এখণ মুক্ত এমন একটি বাক্য লিখে টুইটারে টুইট করেন। ইলন মাস্ক টুইটারকে একটি মুক্ত মতামত প্রকাশের স্থান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার ঘোষনা দেন। মাস্ক বলেন বর্তমানে যেসকল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম প্রচলিত আছে সেগুল হয় অতি ডান পন্থি অথবা অতি বাম পন্থি, মাস্ক টুইটারকে একটি মুক্ত মত প্রকাশের মাধ্যম হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষনা দেন। মালিকানা গ্রহণের কয়েকদিনের মধ্যেই ইলন মাস্ক টুইটারের নিতীমালায় ব্যাপক পরিবর্তন আনার ঘোষনাও দেন। টুইটারের নীতির পরিবর্তনের ফলে অনেক বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান টুইটারে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন সাময়িক বন্ধ রাখার কথা জানায়। বিজ্ঞাপন কমে যাবার কারণে টুইটারের শেয়ারের দাম কমে যায়। এ দুরাবস্থা কাটাতে ইলন মাস্ক বøু ফেরিফাইড ব্যাচ ফিচারের জন্য প্রথমে মাসিক ২০ ডলার চার্জ ধার্য্য করেন পরে ব্যাপক সমালচনার মুখে ২০ ডলার থেকে কমিয়ে মাসিক ৯ ডলার চার্জ ধার্য্য করেন।

এরপর টুইটারে ভুয়া বা নকল ভেরিফাইড এ্যাকাউন্ট খোলার হিড়িক পরে যায়, অবস্থা এতটাই লাজুক হয়ে পড়ে যে জিষু খৃষ্ট্রের নামেও ভেরিফাইড টুইটার এ্যাকাউন্ট দেখা যায়। তারপর শুরু হয় তুমুল সমালচনা, এরপর মাসিক ৯ ডলারের বিনিময়ে ভেরিফাইড বøু ব্যাচ সেবা বন্ধ করতে বাদ্ধ হন ইলন মাস্ক। এসকল বিতর্কিত কর্মকান্ডের ফলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বেশ কিছু বিজ্ঞাপনদাতা ব্রান্ড বিজ্ঞাপন প্রদর্শন সাময়িক বন্ধ রাখার ঘোষনা দেন । ইলন মাস্ক ব্যাবহারকারীদের কম বিজ্ঞাপন দেখিয়ে টুইটার ব্যাবহারে ভিন্য অভিজ্ঞতা দিতে চেয়েছিলেন কিন্তু মাস্ক তার এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন
করতে পারেননি। বেশ কিছু বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান টুইটারে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন বন্ধ করে দেবার কারণে টুইটারের আয় কমে গেছে। এরপর ব্যাবস্থাপনা ব্যায় কমাতে ইলন মাস্ক টুইটার থেকে কর্মি ছাটাইয়ের ঘোষনা দেন এবং চলতি বছরের বোনাস দেয়া হবে না বলে জানান। তারপর টুইটার কর্মিদে মাঝে চাকরি হারাবার ভিতি শুরু হয়। ইলন মাস্কের এসকল বির্তকিত কার্যকলাপের কারণে টুইটার কর্মিদের মাঝে কিছুদিনের মধ্যেই খোভের সৃষ্টি হয় অনেক কর্মি নিজে থেকেই চাকুরি চেরে দেবার ঘোষনা দেন। এবং টুইটারের ডিজিটাল ওয়ালে মাস্ক বিরধী বিভিন্য ¯েøগান প্রদর্শন করা হয়। এসকল বিষয়ে ইলন মাস্কের পতিকৃয়া জানতে চাওয়া হলে মাস্ক বলেন তিনি টুইটারকে অর্থ কামানোর জন্য ক্রয় করেন নি। তিনি মানবতার সেবা করার জন্য টুইটার ক্রয় করেছেন। বিশেষজ্ঞদের ধারণা ইলন মাস্ক টুইটারকে ঝুকির মধ্যে ফেলে দিয়েছেন। কারণ ইলন মাস্ক নিজে একজন ব্যাবসায়ি তিনি এমন একটি প্লাটফর্ম ক্রয় করেছেন যেখানে অন্য ব্যাবসায়ি প্রতিষ্ঠান বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে। এমত অবস্থায় মাস্কের প্রতিদ্বন্দি কম্পানিগুল কি আর টুইটারে বিজ্ঞাপন দেবে এটা একটি বড় চিন্তার বিষয়। বিশেষজ্ঞদের ধারণা ইলন মাস্কের মালিকানাতে টুইটার একটি অনিশ্চিত ভ্যবিস্যতের দিকে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *