সহকারি পরিচালক পদে জনবল নিয়োগ দেবে পানি উন্নয়ন বোর্ড

বাংলাদেশ প্রাকৃতিক ভাবেই প্রাকৃতিক দুর্যগ কবলিত দেশ। বাংলাদেশ প্রতি বছর কোন না কোন প্রাকৃতিক দুর্যগের শিকার হয়ে থাকে। আইলা সিডর আম্ফানের মত ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যগের শিকার হয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশ কৃষি নির্ভর দেশ হবার কারণে আমাদের দেশে এসকল প্রাকৃতিক দুর্যগ দির্ঘমেয়াদি এবং সুদুরপ্রসারি প্রভাব ফেলে। বন্যা কিংবা খরা যাই হোক না কেন তা আমাদের দেশের খদ্য উৎপাদনে বিগ্ন সৃষ্টি করে। ফলে আমরা আর্থিক এবং ভৌগলিক ক্ষতির শিকার হই। বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ি বাংলাদেশ প্রতি বছর গড়ে ১ শতাংম কৃষি জমি হারাচ্ছে। বাংলাদেশে ১৮ কোটিরও বেশি মানুষ বসবাস করেন, এই বিপুল সংখ্যক মানুষের জন্য খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দেশের সরকারকে রিতিমত হিমশিম খেতে হয়। যার কারণে সরকার প্রতি বছর ভারত ও মায়ানমার থেকে প্রচুর পরিমাণ খাদ্য শস্য আমদানি করে থাকে। এসকল আমদানি ব্যায় মেটাতে সরকারকে দেশের অমুল্য বৈদেশিক মুদ্রা খরচ করতে হয়। ফলে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে চাপ সৃষ্টি হয়। একটি দেশের সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় স্থিতিশিলতার জন্য খাদ্য নিরাপত্তা অত্যান্ত জরুরি, তাই পৃথীবির সকল দেশ তাদের নাগরিকদের খাদ্য নিরাপত্তার ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকে। বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জনের প্রধানতম উৎস হল, তৈরি পোশাক রপ্তানি এবং মানব সম্পদ রপ্তানি। গার্মেন্স খাত প্রায় ত্রিশ লক্ষ মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে থাকে, দেশের জিডিপিতে গার্মেন্স ইন্ড্রাস্ট্রির বড় অবদান রয়েছে।

তাছাড়া প্রায় এক কোটি মানুষ দেশের বাইরে কাজ করেন। মধ্যপ্রাচ্য সহ ইউরোপ আমেরিকাতে প্রবাসি ভাইয়েরা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে দেশে রেমিটেন্স পাঠান তাদের পাঠানো রেমিটেন্স দিয়ে দেশের আমদানি ব্যায় মেটানো হয়। বাংলাদেশ এমন এক দেশ যার আমদানি ব্যায় রপ্তানি আয়ের থেকে অনেক বেশি, ফলে বিদেশ থেকে আসা রেমিটেন্স দিয়ে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের আমদানি ব্যয়ের বড় অংশ মেটানো হয়। উপরে বর্ণিত দুইটি খাত থেকে যদি টাকা আসা বন্ধ হয়ে যায় তবে বাংলাদেশ রাষ্ট্র ভয়ানক সংকটে পরবে। পৃথীবি ব্যাপি তেলের চাহিদা কমে যাবার সাথে সাথে বাংলাদেশ মধ্যপ্রাচ্য থেকে আসা রেমিটেন্সের বড় অংশ হারাবে। সারা পৃথীবি এখন নবায়ন যোগ্য জ্বালানির দিকে ঝুকছে, যার প্রভাবে জিবাস্ব তেলের চাহিদা কমে যাবার তিব্র আশংখা আছে। আর তা যদি সত্যি হয় তবে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্য ভয়াবহ পরিণতি অপেক্ষা করছে। প্রাকৃতিক দুর্গগের ফলে দেশের যে অপুরনিয় ক্ষতি হয় তা থেকে দেশকে সুরক্ষা দিতে এবং খাদ্য উৎপাদন বাড়ানোর লক্ষে ১৯৫৯ সালে ত্বতকালিন পাকিস্তান সরকার, পূর্ব পাকিস্তান পানি ও বিদ্যুত উন্নয়ন কর্তিৃপক্ষ গঠন করে। সেই পূর্ব পাকিস্তান পানি ও বিদ্যুত উন্নয়ন কর্তিৃপক্ষ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড নামে প্রতিষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড দেশের বন্যা নিয়ন্ত্রণ, নিস্কাসন ও সেচ প্রকল্প ব্যস্তবায়ন করে থাকে ও এসকল প্রকল্প দেখভাল করে থাকে। বাংলাদেশ রাষ্ট্রের কৃষি জমির সুরক্ষা ও খাদ্য নিরাপত্তায় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড বড় অবদান রেখে চলেছে, সরকারের সদিচ্ছা ও এই সংস্থার দক্ষ ও দায়িক্তশীল কর্মকর্তা কর্মচারিদের অন্তরিক প্রচেষ্টার কারণে সরকারি তথ্য অনুযায়ি দেশ আজ খাদ্যে শংয়সম্পন্য। দেশে খাদ্য পণ্যের দাম স্থিতিশীল রাখতে সরকার বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানি করে থাকে যাতে দেশে খাদ্যের যেন কোন ঘটতি সৃষ্টি না হয়। এই মহান সংস্থা সহকারি পরিচালক পদে জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে সহকারি পরিচালক পদে ১৫ জন লোক নিয়োগ করা হবে।

আবেদনের যোগ্যতাঃ
হিসাব বিজ্ঞান বা ফিনান্স বিষয়ে চার বছর মেয়াদি ¯œাতক ডিগ্রি থাকতে হবে।

বেতন কাঠামোঃ
গ্রেড ৯, ২২,০০০-৫৩,০৬০ টাকা।

কি ভাবে আবেদন করবেন এবং আবেদন ফিঃ
পানি উন্নয়ন বোর্ডের অনলাইন রিক্রুট পোর্টলে প্রবেশ করে অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন সম্পন্য করতে হবে, এবং পরিক্ষার ফি বাবদ ৬০০ টাকা আবেদন করার সময় পরিশোধ করতে হবে।

আবেদনের শেষ তারিখঃ
২৪ জানুয়ারি ২০২৩

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *